বৈশাখে রচিত প্রেমের কবিতা

১.

আমি শুধু চেয়েছি একটা হাত
খররৌদ্রে ঘামে-ভেজা হাত।

মাটির গর্ভে কাঁপছে ধানবীজ
বাতাসে বৃষ্টির ফেনা

হাতমাত্র চেয়েছি
প্রকৃতির রজস্বলা হাত।

২.

বানের পানিতে ভেসে আসছে ছোটো ছোটো মাছ
দাড়কিনা পুঁটি আর চেলা

ঠান্ডা হিম পানিতে ভেসে-আসা হাওরের অতিথি!

এইসব তুচ্ছ মাছ ভেসে আসছে বানে
বনের ফাঁক গলে উজান স্রােতে তিরতির করে

বছরের নয়া বানে মেঘের শব্দে ওরা আমাকে নেবে?

৩.

কুনোব্যাঙ ঘরের কোণে ডাকছে
এবার বাদলা নামবে

অনেক তত্ত্বতালাশের পর ধরতে গেলেই
একটা তো আমার পা-ই ভিজিয়ে দিল!

তুমি হাসলে; এমন করে ব্যাঙ ধরে কেউ?
এবার তোমার পা পঁচবে দ্যাখো!

পচা-পায়েই আমাকে দৌড়াতে হলো সারাজীবন।

৪.

এই বক পাখিগুলি খয়েরি আর শাদা
কিন্তু ডিমগুলো কী আশ্চর্য নীল!

ওই যে মেঘ ডাকে ঈশানে
পাখির বাসায় ডিমগুলো ফাটে; বাচ্চা বের হয় রঙিন

আমি দেখি তোমার চোখে বক পাখিগুলি
বাঁশের বনে বজ্র আর বিজুলিতে তির তির কাঁপছে!

৫.

হিরালির গামছায় চন্দ্রগন্ধ
গাঢ় কণ্ঠে তাড়ায় মেঘ, যাহ্ যাহ্!

আমার হাতে তিন-তিনটি নৃমু-
বহুবার তাড়িয়েছি উড়ন্ত সাপ
গাঢ়কণ্ঠে বলেছি, যাহ্ যাহ্!

এই সূর্যাস্তবেলায় হিরালি আর আমি
দুই দুধভাই ঢোল-করতালে নাচি

নমি তোমারে, বৃক্ষপত্র দয়িতা জননী!

জফির সেতু

জন্ম - ১৯৭১ খ্রিষ্টাব্দের ২১ ডিসেম্বর সিলেটে।
পেশা - জীবনে প্রথম দিকে ক্যাডার সার্ভিস, পরে শিক্ষকতা। কর্মক্ষেত্র শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।
আগ্রহ -  কবি, আখ্যান, প্রবন্ধ ও গবেষণা।
সম্পাদনা - ছোটোকাগজ সুরমস ও গোষ্ঠীপত্রিকা কথাপরম্পরা।
তাঁর এ-যাবৎ প্রকাশিত গ্রন্থের সংখ্যা তিরিশ। নির্বাচিত কবিতা ও কবিতাসংগ্রহ প্রকাশিত হয়েছে যথাক্রমে ২০১৮ ও ২০২০ খ্রিষ্টাব্দে। সর্বশেষ প্রকাশিত আখ্যান একটা জাদুর হাড় (২০২০), কাব্য তিনভাগ রক্ত (২০১১) ও গবেষণা বঙ্গবন্ধু ও নয়াচীন (২০২১)। পিএইচডি সোসিওলিংগুইস্টিক্স-এ। ভাষা, সাহিত্য ও ইতিহাস গবেষণার প্রধান ক্ষেত্র এবং তিনি লোকসাহিত্য-সংগ্রাহক, সংকলক ও সম্পাদক ৷ গবেষণা প্রবন্ধ উপস্থাপনের জন্য আমন্ত্রিত হয়েছেন পৃথিবীর বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে। বক্তৃতা করেছেন যথাক্রমে লন্ডন ও ওয়ার্ল্ড রাইটার্স সেন্টার নরইচে।  ইংল্যান্ডের সেন্ট মার্গারেটস হাউসে কবিতা পড়েছেন ডেভিড লি মর্গান ও স্টিফেন ওয়াটসের সঙ্গে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: