চোখ খোলো যামিনী

যামিনী

জেগে থাকি—
পূর্ণ প্রেম নিয়ে জলভরা চোখের মর্সিয়ায়

.
জেগে থাকি—
তোমার গাত্রময় আমার মনের বিছুটি বাক্য ধামে

.
জেগে থাকি—
চুল ও মেঘে কতজল লুকাতে চেয়েছেন প্রভু, তা বুঝতে

.
এ জেগে থাকা, আমার মিলন কামনা, চাতক-ধ্যান

.
প্রেম তো প্রকৃতির গুপ্ত কথা, একান্ত ঈশ্বর

.
চোখ খোলো যামিনী

ভেষজ

ঘুমাবো তোমার নিঃশ্বাসের শব্দে আজীবন—

.
ঘুঘুর ডাকের মতো তোমার বুকের ভেতর জিকির করছি আমি

.
ধুলোর ছিপ ফেলে বসে আছি—

.
নির্জনতা ভেঙে মাছের লেজের আঘাত জলে যে বিম্ব তৈরি করছে, তা ক্রমশ প্রসারিত হচ্ছে আমার
মানবজন্মের শুশ্রূষায় !

মেহনতি

মানুষ সামুদ্রিক—

.
ভেতরে বেদনার নোনাজল আছড়ে পড়ছে বুকে

.
হাওয়া আর পানি শব্দ

.
ভেজা বালি, পদচিহ্ণ

.
মানুষ সামুদ্রিক
নইলে কি ঝিনুকে মুক্তা ফলে—

বিপরীতে

উষ্ণ চা কাপের দিকে চেয়ে তোমার
নাভিপদ্মের কথা ভাবছি—

.
কি সব গল্প লিখে চলেছে এ সময়

.
সঙ্গমেও তৃপ্ত হয় না মন, কোথাও ভুল হলো — ?

.
মিথ্যুক মেয়েটির কাছে ছেলেরা মায়া কুড়োয়,
কেন যে — !

.
কোকিলের ডিমের মতো ভ্রম থেকে জন্মায় আধুনিক বাংলা কবিতা।

আত্মকথা

একটা নির্জন গল্প বলা যেতে পারে..
শুকনো পাতার দুপুরে কবুতর উড়াউড়ি
.
মিহি জালে অস্পষ্ট জলে গেঁথে থাকা আমি
তুমি হয়তো ছাই-বটি নিয়ে উঠানে অপেক্ষায়
.
দুটো চড়ুই ঠোঁটে নারিকেল পাতার সূক্ষ সুতো
হাওয়ায় তুলো টুনটুনি সুরে মিলনপাতার প্রচ্ছদ
.
আলুক্ষেতে খড় ভিজলে কি শালিকপাখি কাঁদে?
পদ্মপাতায় সাদাভাত, এসব বলছো রুপকথা..!
.
তুমি ভাবছো হুল অথচ ফুল সবমধু দিয়ে দিলো
আমি কাচতে দিয়ে তৃণকাটবো, না আঙুল?
.
ঘুঘুর ডিম দেখলে ঠিক তোমার চোখ মনে হয়
শামুক কোছায় রেখে হাঁস’কে ভোলাচ্ছো?
.
কাক ডাকলে নাকি অলক্ষুণে কিছু ঘটে
তবু তুমি নদীতেই স্নানে যাও —
.
তোমার ভাতফোটার শব্দে কি জীবনানন্দ ঘুম ভাঙবে?
আমি তো বাবার খরম জাদুঘরে দেখে এলাম!
.
আমারা সবাই এখন নতুন পৃথিবীতে…
অথচ তুমি বলছো এটা নাকি বেঁচে থাকা না!

শৈবাল নূর

জন্ম  ৯ সেপ্টেম্বর ১৯৯৯, ধুনট, বগুড়া
আগ্রহ - কবিতা
পেশা - ছাত্র (অনার্স,  সমাজবিজ্ঞান)
ফোনঃ ০১৮৬৭৯৮০৫৬৮
মেইলঃ nurkutobulalom@gmail.com

One thought on “চোখ খোলো যামিনী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: