আফগানিস্তানের তিনটি কবিতা – মঈনুস সুলতান

কবি পরিচিতি: আফগানিস্তানের কবি পারতাও নাদেরী’র জন্ম ১৯৫৩ সালে বাদখশানে। পড়াশুনা কাবুল বিশ্ববিদ্যালয়ে। সাতের দশকে সোভিয়েত আগ্রাসনের বিরোধিতার জন্য পুলে-এ-চরকীর কুখ্যাত কারাগারে তিন বছর অবরুদ্ধ হালতে কাটান। আধুনিক ঘরানার কবি হিসাবে লোকনন্দিত পারতাও নাদেরী অনেক বছর পরবাসের পর হালফিল ফিরে এসেছেন কাবুলে। তিনি লেখকদের সংগঠন “পেন” এর আফগান চাপ্টারের সভাপতি।

শূন্যতা

তোমার কররেখায় প্রতিফলিত সৌরমন্ডল
রশ্মিতে ছড়াচ্ছে অদৃষ্টের আবীর,
হাত তোলো
উঠে দাঁড়াও
দীর্ঘরাত তোমাকে করে দিচ্ছে স্থবির।

এখনো আছে সময়

অনেক আগেই অতিক্রম করেছি মধ্যরাত
ধূলি ধূসরিত হয়েছে সততার আয়না
এসেছে সময় প্রার্থনার,
দুহাত তুলে করেছি মোনাজাত ।

উঠে পড়া উচিত আমার
অতিক্রান্ত হয়নি দিনক্ষণ,
মদিরার সাথে জলভরা জগের তফাত
এখনো ধরতে পারে- আমার মন।

জীন্দেগীর অসমতল ঢালু বেয়ে নামছে সময়ের রথ
আগামিকাল হয়তো বিষমাখা তীরে
বিদ্ধ হবে আমার দুচোখ,
আন্ধারে বিলুপ্ত হবে অগ্রগমনের পথ।

আমার শিশুরা বৃদ্ধ হবে আগামিকাল
অপেক্ষায় থাকবে তারা প্রত্যাগমনের,
উপত্যকার শান্ত বাতাস হবে হয়তো
ঝড়ে উন্মাতাল।

আয়না

জীবনের অর্ধেক কাটিয়েছি আমি
ভিনদেশে.. শহর থেকে গ্রামে.. পরবাসে
উপত্যকা থেকে পর্বতে
হেঁটেছি আমি তীব্র সন্ত্রাসে;
অনুভবের আয়নায় খুঁজেছি নিজের প্রতিফলন
প্রজ্ঞার প্রমিত দ্বন্ধে বেজেছে আমার সত্তা,
নাস্তির অর্থহীন ছন্দে হয়েছে উন্মন।

সম্পাদক

শাহীন তাজ 
ইমেইল- mrshaheentaj@gmail.com, sohojat2019@gmail.com
মোবাইল- ০১৮৭৮-৩৫৩৫৮৮

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: